নারীর চোখে বাংলাদেশ, পর্ব-১

A A A

নারীর চোখে বাংলাদেশ’ স্লোগানে চার নারী ঘুরে বেড়াচ্ছেন দেশের একপ্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। মিশন তাদের বাংলাদেশের ৬৪ জেলা ভ্রমন করা।ইতমধ্যে ভ্রমন করেছেন দেশের ৫২টি জেলা। ভ্রমনের এইপর্বের সাথে আছেন সাকিয়া হক, মানসী সাহা, সিলভি রহমানআর মুনতাহা রুম্মান অর্থি।। চলছে বাকি ১২টি জেলা ঘুরে বেড়ানোর প্রক্রিয়া।এরপরই আনুষ্ঠানিক ভাবে দেশ ভ্রমণ সমাপ্ত করবেন তারা।তাদের এই ভ্রমনের প্রতিদিনের অভিজ্ঞতা, প্রতিবন্ধকতা, আনন্দ তুলে ধরবে ক্যানভাস ডেইলি। লিখেছেন সিদরাতুল সাফায়াত ড্যানিয়েল

 

ভ্রমনের ধারাবাহিকতায় ২২ মার্চ, ২০১৯ সকালে নেত্রকোনার জেলার সুসং দুর্গাপুর থেকে যাত্রা শুরু করে বিজয়পুর লেক দেখে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে গিয়ে সে দিনেরমত যাত্রা শেষ করার পরিকল্পনা ছিলো এই চার কন্যার। বলে রাখা ভালো বিজয়পুর লেক আসলে সকলের কাছে বিরিশিরি লেক নামে বেশি পরিচিত। যদিও এর আসল নাম বিজয়পুর লেক।

তবে ভোর থেকে ঝড় শুরু হওয়ার কারনে বিজয়পুর লেক দেখতে যাওয়া বাতিল করতে হয় তাদের। সকালের নাস্তা শেষে তারা যাত্রা করে সুনামগঞ্জের তাহির পুরের পাশে সুলেমানপুর ঘাটে, টাঙ্গুয়ার হাওড়ের উদ্দেশ্যে। ইচ্ছে রাতে টাঙ্গুয়ার হাওড়ের ময়ূরপঙ্খী নৌকায় চড়ে হাওড়ের বুকে ভেসে ভেসে রাত্রি যাপন করা।

সেই মোতাবেক সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রওনা দেন তারা। জনে জনে জিজ্ঞেস করে এগিয়ে যাচ্ছিলো এই চার কন্যার ছোট্ট স্কুটিগুলো। প্রথমে পৌঁছালো কমলাকান্দা উপজেলায়, সেখান থেকে পাঁচগাঁও ইউনিয়ন, মহিষখলা, জঙ্গলবাড়ি হয়ে টেকেরঘাট পৌঁছায় তারা। ঘড়িতে তখন সাড়ে চারটা। তারা টেকেরঘাটের অধিক পরিচিত শহীদ সিরাজলেকে একটা যাত্রা বিরতি দিলো। একই সাথে তাদের লেক দেখাও হলো আবার কিছুটা বিশ্রাম নেওয়াও হলো। চুনা পাথরের পরিত্যক্ত খনির এই লাইম স্টোন লেকটি নীলাদ্রি লেক নামেও পরিচিত।

টেকেরঘাট শহীদ সিরাজলেক দেখে সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টা নাগাদ তারা পৌঁছে যায় তাহিরপুরে। সেখান থেকে আরো ১ঘন্টা বাইক চালিয়ে এসে পৌঁছায় সুলেমানপুর ঘাটে টাংগুয়ার হাওরে। এই টাঙ্গুয়ার হাওয়ের এসেই আজকের দিনের মতযাত্রা শেষ করলো তারা। আগে থেকেই তারা ময়ুরপঙ্খী নৌকায় থাকার বন্দোবস্ত করে রেখেছিলো। পূর্ণিমায় ময়ুরপঙ্খীতে হাওড়ের বুকে ভেসে ভেসে ঘুমাবে এই ভেবে সারা দিনের ধকল কিছুটা হলেও দূর হয়ে যায়।

ভ্রমনের রাস্তার অবস্থা খুবই ছিলো খারাপ। উঁচুনিচু কাঁদা পথ, ঝিরি পথ, বাঁশের ব্রিজ, ভাঙ্গা রাস্তা ইত্যাদির মধ্য দিয়ে আসতে হয়েছে। তবে তারা জানান, পথে তাদের স্থানীয় আদিবাসীসহ অনেকেই রাস্তা চিনতে সাহায্য করেছেন।

সুনাম গঞ্জে ঢোকার মধ্য দিয়ে এই চার কন্যার বাইকে ভ্রমন ৫৩ জেলা হল। কাল তারা রওনা দিবে সিলেটের উদ্দেশ্যে।

Leave a Reply

*